মেনু নির্বাচন করুন

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
বাবা আদমের মাজার ও আদমদিঘীর প্রখ্যাত দিঘী বগুড়া শহর হতে সিএনজি, বাস, মাইক্রোবাস, অটোরিক্সাযোগে এবং নওগাঁ জেলা হতে সিএন,জি, বাস, মাইক্রোবাস, অটোরিক্সাযোগে এই দিঘীর পাডে যাওয়া যায়। ‍দিঘীটি আদমদীঘি সদর ইউনিয়ন পরিষদের পিছনে। আদমদীঘি সদর
সাউদিয়া সিটি পার্ক শেরপুর উপজেলা হতে পায় ৭ কিলোমিটার দক্ষিনে এবং সেখানে সিএনজি/অটোরিক্সা/ভ্যান/রিক্সা ইত্যাদি দ্বারা যাওয়া সম্ভব। ১০নং শাহ-বন্দেগী ইউনিয়ন পরিষদে অবস্থিত
মহাস্থানগড় বগুড়া সাতমাথা হতে সিএনজি যোগে ১৫ কিমি উত্তরে। বগুড়াশহর হতে ১৫ কিঃমিঃ দূরেপুন্ড্রবর্ধনের প্রশাসনিক কেন্দ্রবিন্দু ছিল এইমহাস্থানগড়। বর্তমানে এলাকাটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর কর্তৃক সংরক্ষিত।
ঐতিহাসিক যোগীর ভবনের মন্দির বগুড়া কেন্দ্রীয় বাসষ্ট্যান্ড থেকে বাসযোগে দররগাহাট বাজার সেখান থেকে রিক্সা বা সিএনজি যোগে পাইকড়র ইউনিয়ন পরিষদ পাইকড়র ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের পূর্বপার্শ্বে
পাঁচপীর মাজার কাহালু বগুড়া সাতমাথা হতে সিএনজি যোগে পাঁচপীর মাজার বা বগুড়া হতে ট্রেনযোগে পাঁচপীর ষ্টেশন হয়ে ২০০ মিটার পশ্চিমে পাঁচপীর মাজার। দূর্গাপুর ইউনিয়নের কাহালু-তালোড়া রাস্তার দক্ষিণ পার্শ্বে
সারিয়াকান্দির পানি বন্দর সারিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদ হতে রিক্সা যোগে কালীতলা গ্রোয়েন বাধ সংলগ্ন যমুনা নদীর ঘাটে যেতে হয়। যমুনা নদীর পশ্চিম তীরে অবস্থিত।
বাবুর পুকুরের গণকবর,শাজাহানপুর বগুড়া শহর থেকে নাটোর রোড এ ১০ কিঃমিঃযেতে হয় বাস বা সি এন জি অটোরিক্সাতে সময় লাগে ৩৫ মিনিট। পারতেখুর, খরনা
জয়পীরের মাজার,দুপচাচিয়া উপজেলা সদর হতে পশ্চিম দিকে আক্কেলপুর যাোয়ার রাস্তায় ৫ কি: মি:যেতে হবে জিয়ানগর
সান্তাহার সাইলো বগুড়া রেল স্টেশন হতে ট্রেনযোগে সান্তাহার জংশনে পৌছে ৩ কি:মি:রাস্তা রিক্সা অথবা টেম্পুযোগে যাওয়া যায়। সান্তাহার রেলস্টেশন থেকে ৩ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত।
১০ দেওতা খানকা হ্ মাজার শরিফ,নন্দীগ্রাম বগুড়া জেলা থেকে ৩৯ কিমিঃ দুরে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের দেওতা গ্রামে অবস্হিত । নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের দেওতা গ্রামে অবস্থিত।
১১ বেহুলা লক্ষিণদ্বর (গোকুল মেধ) বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের পশ্চিম পাশে গোকুল ইউনিয়ন পরিষদের সম্মুখে যানবাহন যোগে যাওয়া যায় বগুড়া সদর উপজেলা

সর্বমোট তথ্য: ১১